Author Picture

আজাদুর রহমানের তিনটি কবিতা

আজাদুর রহমান

দূরত্ব একটা ধারণা

আমাদের মধ্যে কোন দূরত্ব নেই।
তুমি যেভাবেই থাকো,
শুয়ে-বসে-দাঁড়িয়ে
সামনে-পিছনে-ডাইনে-বায়ে
তোমার যেভাবে মন চায়
এমনকি পরস্পর
গভীর আলিঙ্গনেও।
তুমি যেখানেই থাকো
ঢাকা বগুড়া চট্রগ্রাম
আমেরিকা কোস্টারিকা কিংবা
পৃথিবীর যে কোণাতেই,
আমাদের মধ্যে এতটুকু দূরত্ব নেই।
দূরত্ব বলে আসলে কিছুই নেই
এই যে ছায়াপথের পর সুদূরে
জ্বলছে যে তারা
সেখানে কেউ কারও দূরে নয়।
দূরত্ব একটা ধারণা,
একটা মিথ্যা শব্দের শুভংকর
যা দিয়ে আমরা শুধু
শত্রু-শত্রু খেলতে পারি।
অথচ আমরা নিকটে
ঈশ্বরের মতো দূরত্বহীন
অতি নিকটে।

 

আবহমান

তুমি মারা গেলে
তোমার নামে
মিনার বা মাজার হবে না—
হলেও তোমার কিছু যায় আসে না ।
গভীর ঘুমে তলিয়ে
যেতে যেতে
তুমি যা ভাবছো তা ঠিক নয়
অনেকেই বরং বিরক্ত তোমার প্রতি
তাছাড়া তুমি যাদের উপর জেদ করে
বড় হতে চাও,
তারা কেউ তোমাকে ভালোবাসে না।
মনে রেখো, আনন্দ এক ধ্যানমগ্ন পিদিম
তার কাছে যাও, চুপচাপ-স্রেফ একা
বিখ্যাত হলেই তুমি ধরা পড়বে
পা থেকে পথ সরে যাবে
যতদিন বঞ্চিত আছো
মধ্যবিত্ত মন আছে
তুমি সুন্দর
ততদিন তুমি আবহমান।

 

বেঁচে থাকো

যে যেখানে আছো
বেঁচে থাকো
মনে করো,
তোমার চারপাশে যা আছে
মানে, যতদুর তুমি যেতে পারো
— সেইটুকুই পুরো পৃথিবী
এর মধ্যেই ইউরোপ আমেরিকা
— বাইরে আর কোন মহাদেশ নেই।
দ্বিধা-দ্বন্দ্বের মধ্যে থেকো না
অমীমাংসিত রয়ে যাবে
মুক্তি হবে না,
তোমার এই একটাই পৃথিবী
একবারই এসেছ,
আর আসা হবে না।
তোমার চারপাশে যা আছে
মানে যতদুর তুমি যেতে পারো
— সেইটুকুই পুরো পৃথিবী
বিশ্বাস করো
— এর বাইরে আর কোন মহাদেশ নেই,
কত কিছুই তো তুমি না দেখে
বিশ্বাস করো।

আরো পড়তে পারেন

আরণ্যক শামছ-এর একগুচ্ছ কবিতা

প্রান্তিক কবি আমি এক নির্জনে পড়ে থাকা প্রান্তিক কবি। যেন সমাজতাত্ত্বিক সীমারেখার শেষপ্রান্তে ঝুলে থাকা এক পরিত্যাক্ত পলিথিন ব্যাগ। এখানে লুকিয়ে রেখেছি ক্ষুধা, দারিদ্র্য, ভগ্নস্বাস্থ্য, অসাম্য, অশিক্ষা ও মানুষের ছলাকলার ইতিহাস। আমি গাণিতিক ধারণার বাইরে দাঁড়িয়ে থাকা এক অনস্তিত্বের অপ্রয়োজনীয় সংযুক্তি। তবে জিপসিদের মত আমিও দাঙ্গা বাঁধিয়ে দিতে পারি। আমিও মাটির ঘ্রাণ থেকে জেনে নিতে….

আজাদুর রহমানের একগুচ্ছ কবিতা

সবুজ স্তন প্রচুর নেশা হলে দেখবেন— গাছগুলো বৃষ্টি, পাতার বদলে বব চুল, কী ফর্সা! তার বাহু, উরু ব্যাঞ্জনা, জলভারে নুয়ে আছে সবুজ স্তন। নেশা এমনই এক সদগুন যে, মাঝরাতে উড়ে উঠবে রাস্তাগুলো আকাশে মুখ দিয়ে আপনি বলছেন— আমাদের একটা পৃথিবী ছিল, ঠিক চাঁদের মত গোল। চুর পরিমাণ নেশা হলে, আপনার পা থেকে অহংকারী পাথর খসে….

গাজী গিয়াস উদ্দিনের একগুচ্ছ কবিতা

ক্লান্তির গল্প যারা উপনীত সন্ধ্যে বেলায় ফিরে দেখো দিন মলিন স্বপ্ন – ধূসর জীবন, প্রখর রোদের শায়ক ক্রীড়া প্রাচুর্যে আত্মহারা ছিলে স্বাধীন একদিন, পশ্চিম বেলা চেয়ে চেয়ে আজ শেষ করো ক্লান্তির গল্প।   ছড়ানো বিদ্রুপ সাপের চুমোতে কোথা বিষ হিংস্র নিশ্বাসে তোমার গরল বিশ্বাসে আমাকে পাবে জিয়ল সরল। রুক্ষতা ছেঁটে ফেল – চেহারা কমনীয় সব….

error: Content is protected !!