Author Picture

তারিকুল ফেরদৌস-এর একগুচ্ছ কবিতা

তারিকুল ফেরদৌস

ল্যাম্পপোস্ট

দাঁড়িয়ে আছি রাতের ল্যাম্পপোস্টের নিচে
চেয়ে আছি চাতকের মতো অপলক দৃষ্টি নিয়ে
যতদূর পৌঁছে এই দূরবীন চোখের আলো
তার চেয়েও গভীরে অন্তর্দৃষ্টি দিয়ে
শত সহস্র কিলোমিটার দূরে বহুদূরে।

শুধু তুমি আসবে বলে!
কাঁচা রাত গভীর হয়ে হয় ভোর
ক্ষীণ হয়ে আসে লাম্পপোস্টের আলো
অন্ধ আমি তোমার প্রেমে পাগল!
যে গেছে সে কি আর ফিরে আসে কভু।

 

বিচ্যুতি

গোলাপ পাপড়ি ঝরে পড়ে হঠাৎ করে
খসে পড়ে পাতা উঠোনে অবহেলায়।
মেঘপুঞ্জ জমে উঠে আকাশের গায়
বৃষ্টি হয় নৈঃশব্দে হারানো কৈশোরের
খেলার সাথীর বাসন্তী বাসর রাতে।

 

প্রতিশ্রুতি নেই কোন

শিশিরসিক্ত ভোরে জেগে উঠে পাখিগুলো
ভোরের প্রর্থনাশেষে মেলে ধরে রূপালি ডানা
প্রাতরাশ শেষে উড়ে চলে নীল দিগন্তে
একটি শান্তির পৃথিবীর সন্ধানে
যার প্রতিশ্রুতি ছিল না কোন।

 

ইচ্ছে করে

ইচ্ছে করে আকাশ ছোঁব
শাদা মেঘে গা এলিয়ে
চাঁদের দেশে লুকিয়ে রবো।
জোছনা জলে স্নান করে
তোমার মাঝে বিলিন হবো।
ইচ্ছে করে আকাশ ছোঁব
পাখির ডানায় ভর করে
মেঘবৃষ্টি পাড়ি দেব।

 

জীবন বয়ে চলে

সেকেন্ড মিনিট ঘন্টা পেরিয়ে যায়
সূর্য উঠে মিলায় রাতের তারা।
প্রতিদিনের ব্যাস্ততায় কেটে যায় জীবন।
বাগানের গোলাপ ঝরে
তোমার সুগন্ধি মাখা শরীরের শোভা
বৃদ্ধি করে। দোয়েলের মতো ডানা
ঝাপটায় তোমার আনন্দকাব্য।
সুন্দরের সাথে আলিঙ্গন করে
তোমার প্রতিক্ষণ প্রতিটি মুহূর্ত।

আরো পড়তে পারেন

আজাদুর রহমানের একগুচ্ছ কবিতা

সবুজ স্তন প্রচুর নেশা হলে দেখবেন— গাছগুলো বৃষ্টি, পাতার বদলে বব চুল, কী ফর্সা! তার বাহু, উরু ব্যাঞ্জনা, জলভারে নুয়ে আছে সবুজ স্তন। নেশা এমনই এক সদগুন যে, মাঝরাতে উড়ে উঠবে রাস্তাগুলো আকাশে মুখ দিয়ে আপনি বলছেন— আমাদের একটা পৃথিবী ছিল, ঠিক চাঁদের মত গোল। চুর পরিমাণ নেশা হলে, আপনার পা থেকে অহংকারী পাথর খসে….

গাজী গিয়াস উদ্দিনের একগুচ্ছ কবিতা

ক্লান্তির গল্প যারা উপনীত সন্ধ্যে বেলায় ফিরে দেখো দিন মলিন স্বপ্ন – ধূসর জীবন, প্রখর রোদের শায়ক ক্রীড়া প্রাচুর্যে আত্মহারা ছিলে স্বাধীন একদিন, পশ্চিম বেলা চেয়ে চেয়ে আজ শেষ করো ক্লান্তির গল্প।   ছড়ানো বিদ্রুপ সাপের চুমোতে কোথা বিষ হিংস্র নিশ্বাসে তোমার গরল বিশ্বাসে আমাকে পাবে জিয়ল সরল। রুক্ষতা ছেঁটে ফেল – চেহারা কমনীয় সব….

বিপিন বিশ্বাসের একগুচ্ছ কবিতা

শূন্যতায় বাজে প্রণবধ্বনি শূন্যতায় বাজে প্রণবধ্বনি আড়ালে যার মহাজাগতিক রশ্মির চারণভূমি প্রতিবন্ধকতাকে পাশকাটিয়ে নিমগ্ন বিশ্বের স্বরূপ দেখি ধ্যানের স্তরে। মায়ার কায়া ঝেড়ে ফেলে সত্যকে চিনি আপন করে জ্যোতির্ময় জেগে আছে দীপ্ত শিখার আপন জলে । মূল্যবোধের সলতে টাকে মারতে চাই না দিন-দুপুরে অন্ধকারে আলোক রেখা সদাই খোঁজি হৃদ মাঝারে।   জীবনের ধর্ম এই জীবন মা….

error: Content is protected !!