Author Picture

জমির হোসেন এর একগুচ্ছ কবিতা

জমির হোসেন

বেদনার সুখ
.
তোমাকে চেয়ে পেয়েছি
বেদনার এক নদী
সেই নদীতে মেলেছি হৃদয়
চাঁদের মত হাসো যদি।

দিনের আলো গড়িয়ে
রাতের নীরবতা
আঁধার গভীর হলে
মনে শুধুই তোমার কথা।


তুমি আছ
.
এক পাহাড় থেকে অন্য পবর্তের প্রান্তে
এই জগত থেকে অন্য জগতে
নিঃশ্বাসের অন্তিম সময়েও থাকব তোমার
রূপ পরিবর্তনে হও বহুরুপী
ভাঙ্গো মন অদৃশ্য আশায়, কষ্ট সইব নীরবে
তবুও পৃথিবীর নিচে ছায়া হয়ে পাশে থাকব
ভেবনা কোন রঙে বদলে যাবে মন।


নিঃস্বাস আমার
.
ক্লান্তির পথ ছোট কি!
জোনাকির আলো কম
অন্ধকারে পথচারীকে
পথ দেখায় আলো।
বৈরি পৃথিবীর জীবনে
নিঃশ্বাস থাকা কম কিসের!
বৃক্ষ ছাঁয়া দেয় প্রখর রোদে
অস্থির মানুষ পায় প্রশান্তি।


অদৃশ্য শব্দ
.
অদৃশ্য কোন স্পর্শ মনকে নাড়া দেয়।
ঘুমন্ত দেহ হঠাৎ জেগে ওঠে
অদৃশ্য দেখার চেষ্টা।
কিন্তু কোন অস্তিত্ব খুঁজে পাইনা
বিষন্ন উদ্বিগ্ন ভঙ্গুর হৃদয়।
ভাব সাগরে ডুব দেই
কিছু প্রশ্নের মুখোমুখি হই।
হঠাৎ অদৃশ্য শব্দ কানে ভাসে
তোমার সাথে দেখা রুহের জগতে।

আরো পড়তে পারেন

আজাদুর রহমানের একগুচ্ছ কবিতা

সবুজ স্তন প্রচুর নেশা হলে দেখবেন— গাছগুলো বৃষ্টি, পাতার বদলে বব চুল, কী ফর্সা! তার বাহু, উরু ব্যাঞ্জনা, জলভারে নুয়ে আছে সবুজ স্তন। নেশা এমনই এক সদগুন যে, মাঝরাতে উড়ে উঠবে রাস্তাগুলো আকাশে মুখ দিয়ে আপনি বলছেন— আমাদের একটা পৃথিবী ছিল, ঠিক চাঁদের মত গোল। চুর পরিমাণ নেশা হলে, আপনার পা থেকে অহংকারী পাথর খসে….

গাজী গিয়াস উদ্দিনের একগুচ্ছ কবিতা

ক্লান্তির গল্প যারা উপনীত সন্ধ্যে বেলায় ফিরে দেখো দিন মলিন স্বপ্ন – ধূসর জীবন, প্রখর রোদের শায়ক ক্রীড়া প্রাচুর্যে আত্মহারা ছিলে স্বাধীন একদিন, পশ্চিম বেলা চেয়ে চেয়ে আজ শেষ করো ক্লান্তির গল্প।   ছড়ানো বিদ্রুপ সাপের চুমোতে কোথা বিষ হিংস্র নিশ্বাসে তোমার গরল বিশ্বাসে আমাকে পাবে জিয়ল সরল। রুক্ষতা ছেঁটে ফেল – চেহারা কমনীয় সব….

বিপিন বিশ্বাসের একগুচ্ছ কবিতা

শূন্যতায় বাজে প্রণবধ্বনি শূন্যতায় বাজে প্রণবধ্বনি আড়ালে যার মহাজাগতিক রশ্মির চারণভূমি প্রতিবন্ধকতাকে পাশকাটিয়ে নিমগ্ন বিশ্বের স্বরূপ দেখি ধ্যানের স্তরে। মায়ার কায়া ঝেড়ে ফেলে সত্যকে চিনি আপন করে জ্যোতির্ময় জেগে আছে দীপ্ত শিখার আপন জলে । মূল্যবোধের সলতে টাকে মারতে চাই না দিন-দুপুরে অন্ধকারে আলোক রেখা সদাই খোঁজি হৃদ মাঝারে।   জীবনের ধর্ম এই জীবন মা….

error: Content is protected !!