Author Picture

আবু সায়েম এর একগুচ্ছ কবিতা

আবু সায়েম

অস্পৃশ্য

অদৃশ্য এক ঘাতক
অকস্মাৎ কেড়ে নিয়েছে
সব স্পর্শের অধিকার-
শিশুর নরম গাল
বাগানের সুগন্ধি গোলাপ
পার্কের মসৃণ ঘাস
হাতলযুক্ত লোহার বেঞ্চি
বাস ট্রাম রেলগাড়ি
প্রিয় স্কুল উপাসনালয়
সবুজ মলাটে বাঁধা
ভালোবাসার কবিতাগুচ্ছ

… এমনকি তোমাকেও।

 

বুমেরাং

তোমাকে বিদীর্ণ করবো বলে
বাণে ভরেছি ধনুক
অবাধ্য তীর বুমেরাং হয়ে
ভেদ করে নিজ বুক।

 

সহজ শর্ত

সহজ শর্তে বাঁচতে চাই
নরম হাতে ছুঁতে চাই সকালের রোদ্দুর
বুক ভরে নিতে চাই কুয়াশার ঘ্রাণ
স্বপ্নগুলো ভেজাতে চাই বৃষ্টিতে।

সহজ শর্তে বাঁচতে চাই
নারীর ঠোঁটে আঁকতে চাই প্রেম
রাঙাতে চাই শিশুর টোলপড়া গাল।

সহজ শর্তে বাঁচতে চাই
শুন্যতায় ধরতে চাই মায়ের আঁচল
হৃদয়ে লিখতে চাই জীবনের গদ্য
মিথ্যেগুলো ভাসাতে চাই মস্ত ফানুসে।

সহজ শর্তে বাঁচতে চাই
রঙিন হাটে কিনতে চাই সাদাকালো মন।

 

বিদায়বেলা

বসন্তের শেষ বিকেলে
শহরের ব্যস্ত ফুটপাথে
হাঁটছিলাম দুজন।
তোমার রঙিন স্কার্ফ
বাতাসে এলোমেলো-
ছুঁয়ে দিচ্ছিল আমার গা।
অব্যক্ত বাসনা বুকে
শুষে নিচ্ছিলাম
শরীরের সবটুকু ঘ্রাণ।
কামনায় থমকে সময়
কেটে যায় সহস্র কাল
ফুরিয়ে আসে বিকেল।
বিদায়বেলা বিষন্ন কন্ঠে
বলেছিলে, ‘যাই দেব’
আমার প্রতীক্ষা
শুধু আরেক জন্মের।

 

ঋষি নই

উর্বশী প্রহর গুণে
ভাঙবে ঋষির ধ্যান।

অশোক বন উতলা
ছন্দময় নৃত্যের তান্ডবে
আদিগন্ত মর্ত্য জুড়ে
বহে সুরের মদিরা।

মানবীর বাঁকা ঠোঁটে
নিষিদ্ধ প্রেমের আমন্ত্রণ
নির্জলা যৌবন রসে
বাঁধতে সাধুর মন।

তবু ঋষি অবিচল
সাধনায় নিত্য তার বাস
টলাতে পারেনা তাকে
অপ্সরার হাতছানি।

আমিতো সাধক নই
তপস্যায় করবো পণ
তোমাতে বিলীন হয়ে
কাটাবো এক জীবন।।

আরো পড়তে পারেন

আজাদুর রহমানের একগুচ্ছ কবিতা

সবুজ স্তন প্রচুর নেশা হলে দেখবেন— গাছগুলো বৃষ্টি, পাতার বদলে বব চুল, কী ফর্সা! তার বাহু, উরু ব্যাঞ্জনা, জলভারে নুয়ে আছে সবুজ স্তন। নেশা এমনই এক সদগুন যে, মাঝরাতে উড়ে উঠবে রাস্তাগুলো আকাশে মুখ দিয়ে আপনি বলছেন— আমাদের একটা পৃথিবী ছিল, ঠিক চাঁদের মত গোল। চুর পরিমাণ নেশা হলে, আপনার পা থেকে অহংকারী পাথর খসে….

গাজী গিয়াস উদ্দিনের একগুচ্ছ কবিতা

ক্লান্তির গল্প যারা উপনীত সন্ধ্যে বেলায় ফিরে দেখো দিন মলিন স্বপ্ন – ধূসর জীবন, প্রখর রোদের শায়ক ক্রীড়া প্রাচুর্যে আত্মহারা ছিলে স্বাধীন একদিন, পশ্চিম বেলা চেয়ে চেয়ে আজ শেষ করো ক্লান্তির গল্প।   ছড়ানো বিদ্রুপ সাপের চুমোতে কোথা বিষ হিংস্র নিশ্বাসে তোমার গরল বিশ্বাসে আমাকে পাবে জিয়ল সরল। রুক্ষতা ছেঁটে ফেল – চেহারা কমনীয় সব….

বিপিন বিশ্বাসের একগুচ্ছ কবিতা

শূন্যতায় বাজে প্রণবধ্বনি শূন্যতায় বাজে প্রণবধ্বনি আড়ালে যার মহাজাগতিক রশ্মির চারণভূমি প্রতিবন্ধকতাকে পাশকাটিয়ে নিমগ্ন বিশ্বের স্বরূপ দেখি ধ্যানের স্তরে। মায়ার কায়া ঝেড়ে ফেলে সত্যকে চিনি আপন করে জ্যোতির্ময় জেগে আছে দীপ্ত শিখার আপন জলে । মূল্যবোধের সলতে টাকে মারতে চাই না দিন-দুপুরে অন্ধকারে আলোক রেখা সদাই খোঁজি হৃদ মাঝারে।   জীবনের ধর্ম এই জীবন মা….

error: Content is protected !!