Author Picture

মুন্সি বোরহান মাহমুদের একগুচ্ছ কবিতা

মুন্সি বোরহান মাহমুদ

চোখ-১
.
চোখের ভেতর শস্যদানা
চোখের ভেতর দুগ্ধ ছানা
চোখের ভেতর মাটির পায়েস
জাত কিষাণীর মুন্সিয়ানা

চোখ-২
.
চোখের ভেতর প্রজাপতি
চোখের ভেতর লজ্জাবতী
চোখের ভেতর ইশক ও মাশুক
গাজী, কালু, চম্পাবতী

চোখ-৩
.
চোখের ভেতর সুফিয়ানা
চোখের ভেতর চোখ বেগানা
চোখের ভেতর বারমুডা কোন
সিন্ধু গিরি মারিয়ানা

চোখ-৪
.
চোখের ভেতর আকাশ প্রদীপ
চোখের ভেতর বৃক্ষ সজীব
চোখের ভেতর পদ্মদিঘি
শ্যামল সবুজ এইতো বদ্বীপ

চোখ-৫
.
চোখের ভেতর আলো আশা
চোখের ভেতর ভালোবাসা
চোখের ভেতর প্রেম বিরহ
মোহন মায়া সর্বনাশা

চোখ-৬
.
চোখের ভেতর শুদ্ধ সোনা
চোখের ভেতর জ্যোতির কনা
চোখের ভেতর লক্ষ চোখের
নতুন ভোরের সূর্য বোনা

চোখ-৭
.
চোখের ভেতর পুব আকাশ
চোখের ভেতর দুবলা ঘাস
চোখের পাতার পেন্ডুলামে
সৌরজগত অলিম্পাস!

চোখ-৮
.
চোখের ভেতর মহাকাল
চোখের ভেতর ইন্দ্রজাল
চোখের ভেতর সম্ভাবনা
এবং তাহার অন্তরাল!

চোখ-৯
.
চোখের ভেতর স্বর্গ সুধা
চোখের ভেতর আদিম ক্ষুধা
চোখের ভেতর ক্রোধের অনল
রক্তে রঙিন লাল বসুধা

চোখ-১০
.
চোখের ভেতর স্বপ্ন সাধ
চোখের ভেতর মরণফাঁদ
চোখের ভেতর সহস্র চোখ
দেখছে আকাশ জোছনা চাঁদ!

চোখ-১১
.
চোখের ভেতর রাগ রাগিণী
চোখের ভেতর নাগ নাগিনী
চোখের ভেতর মেঘ কালো কেশ
ঝলকে ওঠা সৌদামিনী

চোখ-১২
.
চোখের ভেতর ছল ছলনা
চোখের জলেও প্রতারণা
চোখের ঢঙেই শিকার ধরে
লাস্যময়ী রুপ ললনা

চোখ-১৩
.
কোন চোখে প্রেম আর কোন চোখে ধোকা
বড়োই কঠিন তার হিসাব নিকাশ
কোন পদ সাথী আর কোন পায়ে লাথি
কোন পথে নিঃশেষ অথবা বিকাশ!
যে পাথর ঝরনায় বুক পেতে রয়
ক্ষয়ে ক্ষয়ে যায় তবু কঠিন সমান
ক্রমে ক্রমে জমে ওঠা পলির প্রদেশ
কখনোবা পাথরের করে অপমান!

আরো পড়তে পারেন

খান মুহাম্মদ রুমেল এর একগুচ্ছ কবিতা

নগ্ন বসন . নগ্ন পা উসকোখুসকো চুল মলিন বসন তাকে দেখেছিলাম শহিদ বেদিতে! তারপর রে রে করে তেড়ে আসা একদলের কারণ শৃঙ্খলা রক্ষার সবটা দায় তাদের। হাতে নেই পুষ্পগুচ্ছ নেই লাল সবুজ পিরান অনাহুত এই আগন্তুক সাজানো বেদিতে কেন- সরাও সরাও- এক্ষুনি সরাও- উঠেছিলো কলরোল! তিনি শহিদের পিতা! টেনে নামিয়ে দেয়ার সময়- বলেছিলেন কেউ একজন….

মোবাশ্বির হাসান শিপনের একগুচ্ছ কবিতা

উচ্ছ্বাসের নদী . উচ্ছ্বাসের নদীতে যেতে যেতে- আমাদের স্বপ্নদ্যানে হেঁটে হেঁটে সন্ধ্যা নামে; সহিষ্ণু মমতা ব্যবচ্ছেদ করে- বিবর্ণ ডায়রী লোনাজলে ভেসে যায়। ল্যাম্প পোস্টের জন্ডিস আলোয়- ধ্যানের রাজ্যের কিনারা বেয়ে মায়ার শরীরে সিরোসিস বেঁধে নিথর লাশে সমাপ্তি টানে।   গভীর পরিখা . এতো গভীর পরিখা- তবু নিপুন গহ্বরের আর্তনাদের আগুন বুকের মাঝখানে,মগজের করোটিতে ক্যামনে সাঁতরে….

তিনটি কবিতা

বালুঘড়ির শব্দে . ফেরা যায়— কিন্তু অবেলায় ফেরো যদি শিশিরে জড়ানো রূপালি জুঁইচাঁপা — দেখবে— আজো ঝরছে ফোঁটায় ফোঁটায় নিরবধি; গোরস্থানের পাশে ধানের ক্ষেত কখন যে কাটা হয়ে গেছে হৃদয়ের মরমী শস্য, একটু দাঁড়াও — উড়ছে জোড়া গঙ্গাফড়িং এমন সতেজ সবুজ কীভাবে সোনালি হলো— সেও এক রহস্য। দেখবে— ধানখোঁটা আবাবিলের ঝাঁক পাখসাটে আঁকছে ঝংকারের চিত্রকলা,….

error: Content is protected !!